মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক নবম শ্রেণি বাংলা এর প্রশ্ন ও উত্তর পার্ট ২ । Model activity tasks Bengali Class 9 part 2 .




আজকে আমরা আলোচনা করব নবম শ্রেণির বাংলা মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর নিয়ে পার্ট ২



মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক নবম শ্রেণি ইতিহাস এর প্রশ্ন ও উত্তর

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক নবম শ্রেণি ইতিহাস এর প্রশ্ন ও উত্তর পার্ট ২




নীচের প্রশ্নাগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখাে :

(১) 'চারি মেঘে জল দেয় অষ্ট গজরাজ।-অষ্ট গজরাজের পরিচয় দাও।

উত্তর:-
অষ্ট গজরাজ শব্দের অর্থ হল আটটি হাতি । ভারতীয় পুরাণ অনুযায়ী এই আট গজরাজ বা হাতি আটটি এর দিকের রক্ষাকর্তা । এদের নাম হলো কুমুদ ,ঐরাবত, পুদ্রিখো , পুষ্পদন্ড , অঞ্জন, বামন, সুপ্রতীক ও সার্বভৌম ।


(২) ধীবর-বৃত্তান্ত' নাট্যাশে দুই রক্ষীর কথাবার্তায় সমাজের কোন ছবি ফুটে উঠেছে ?

উত্তর:-
 ধীবর-বৃত্তান্ত নাট্যাংশ দুই রক্ষী এর কথাবার্তার মধ্য দিয়ে বাস্তব জীবনের বেশ কয়েকটি চিত্র ফুটে উঠেছে তার মধ্যে অন্যতম একটি হলো
জোর যার মুলুক তার অর্থাৎ চিরকাল চিরদিন সাধারণ হতদরিদ্র ক্ষমতাহীন মানুষদের ক্ষমতা মানুষরা হয় প্রতিপন্ন শোষণ অত্যাচার করে তার চিত্র ফুটে উঠেছে। একজন সৎ নিরীহ ধীবর কে বাটপার, গাঁটছড়া, ইত্যাদি বলতে এদের দ্বিধা বোধ করেনি । এমনকি রক্ষীদের মুখে শোনা যায় - হয় তোকে শকুন দিয়ে খাওয়ানো হবে না হয় তোকে কুকুর দিয়ে খাওয়ানো হবে । এই মন্তব্য শুনে নিঃশব্দে আমরা বলতে পারি রক্ষীদের চরিত্রের মধ্যে দিয়ে অমানবিক অবিবেচকতার পরিচয় পাওয়া যাই ।


(৩) 'এটা খুবই জ্ঞানের কথা- কার, কোন কথাকে জ্ঞানের কথা বলা হায়েছে ?

উত্তর:-
লিও তলস্তয় এর রচিয়তা ইলিয়াস গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র ইলিয়াসের কথাকে জ্ঞানের কথা বলা হয়েছে । ইলিয়াস বাস্তব জীবনে একটি চরম সত্য উপলব্ধি করতে পেরেছিল । এবং সেটা সকলের সামনে বলেছেন । আমাদেরকে সৃষ্টিকর্তা সৃষ্টি করেছেন তার উপাসনা করার জন্য তাই আমাদের উচিত পার্থিব লোভ-লালসা ত্যাগ করে সৃষ্টিকর্তার উপাসনা করা । এই কথাকে গানের কথা বলা হয়েছে ।


(8.) আমার ছাত্র আমাকে অমর করে দিয়েছে। বক্তা কে কীভাবে তিনি অমরত্ব লাভ করেছেন ?


উত্তর:-
বক্তা হলেন নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখা দাম গল্পের অঙ্কের শিক্ষক মহাশয় ।
এই অংকের স্যার ভাবতে পারতেন না যে তার ছাত্র হয়ে কেউ অংক করতে পারবে না । মেরে বকে শাসন করে হলেও অংক তিনি শেখাতেন । এর ফলে ছাত্রদের কাছে সেই শিক্ষক বিভীষিকাময় ছিল । তার এক ছাত্র সুকুমার পরবর্তীকালেমাষ্টারমশাইর এই বিভেষিকা কথা একটি পত্রিকা তুলে ধরে ছিলেন সেটি পড়ে শিক্ষক মহাশয় উপরোক্ত কথাটি বলেছেন ।


(৫.) নঙ্গর কবিতায় নোঙ্গর কীসের প্রতীক তা বুঝিয়ে দাও

উত্তর :-
নঙ্গর হল নৌকা বা জলোযন্ত্রকে একই স্থানে স্থির রাখার যন্ত্র । কিন্তু রোমান্টিক কবি এবার তে ব্যবহার করেনি । রোমান্টিক মন সংসার জীবন ছেড়ে অনেক দূর দুরন্ত চলে যেতে চাই । কিন্তু নঙ্গরের মত কবির সংসারে জীবন স্রেহ, ভালোবাসা, মায়া,মমতা,প্রভূতি, কবির মন কে আটকে রাখে তাই কবি সংসার জীবনে স্নেহ-ভালবাসা ইত্যাদিকে নঙ্গর বলেছেন ।


(৬). কন্যা> কইন্যা> কনে এর ক্ষেত্রে ধ্বনি পরিবর্তনের কোন রীতি অনুসৃত হয়েছে।


উত্তর:-
এখানে ধ্বনি পরিবর্তনের অভিশ্রুতি রীতি অনুসৃত হয়েছে ।

অপিনিহিতির ফলে পূর্বে আগত ই করে কিংবা উ করে সন্নিহিত স্বরধ্বনি কে প্রভাবিত করে ধ্বনি পরিবর্তন সাধন করে তখন তাকে তখন তাকে অভিশ্রুতি বলে ।

আখানে কন্যা ( মূল শব্দ), কইন্যা ( আপিবিহিতি),আর কনে ( অভিশ্রুতি)


(৭) বৃদন্ত ও তদ্ধিতান্ত শব্দের উদাহরণ দাও।

উত্তর:-
ধাতুর সঙ্গে কৃত প্রত্যয় যুক্ত হয়ে যে শব্দটি গঠিত হয় তাকে বিদন্ত শব্দ বলে ।

মৌলিক শব্দের সঙ্গে তোদিতো প্রত্যয় যে শব্দ গঠিত হয় তাকে তদ্ধিতান্ত বলে ।


(৮) মৌলিক স্বরধ্বনির সংখ্যা কয়টি ?

উত্তর:-
সাতটি

যথা - অ,আ,ই,ন, ও,উ,‌‌ অ্যা ।

Post a Comment

0 Comments