পঞ্চম শ্রেণির বাংলা মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর পার্ট 2 । Class 5 Bengali Model Activity Tasks part 2 । কী আছে মাের তল্পি টায় / দেখবি যদি জলদি..। News Katha

আজকে আমরা আলোচনা করবছ পঞ্চম শ্রেণির বাংলা মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর নিয়ে পার্ট 2


পঞ্চম শ্রেণির বাংলা মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর পার্ট 2

 পঞ্চম শ্রেণির বাংলা মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এর সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর পার্ট 2  । Class 5 Bengali Model Activity Tasks part 2 । কী আছে মাের তল্পি টায় / দেখবি যদি জলদি..। News Katha

১. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখাে :

১.১. কী আছে মাের তল্পি টায় / দেখবি যদি জলদি আয়।- গল্পবুড়াের তল্পিতে কী কী দেখতে পাওয়া যাবে ?

উত্তর :- গল্প বুড়াের তল্পিতে দত্যি, দানব, পক্ষীরাজ, রাজপুত্র, সার বাধা করীর পাহাড়, চোখধাঁধানো হীরা মানিক লাল মানে সোনার কাঠি, ময়নামতির টলটলে জল, তেপান্তরের মাঠ, হট্টমেলার হাট এবং কেশবতী নন্দিনী এইসব আজগুবি গল্পে ভরা আছে।

১.২. এমনি করে সারা শীত দেখতে দেখতে কেটে গেল।- বুনাে হাঁস' গল্প অনুসরণে শীতকালটির বর্ণনা দাও ।

উত্তর :- লীলা মজুমদারের লেখা বুনোহাঁস গদ্যাংশ টি তে দেখা যায় শীতের শুরুতে একঝাঁক বুনােহাঁস উত্তর থেকে দক্ষিণের গরমের দেশের দিকে উড়ে যাচ্ছিল। তাদের মধ্যে একটি হাঁসের ডানা জখম হওয়ায় উড়তে না পেরে শীতে থরথর করে কাঁপতে কাঁপতে নিচে নেমে পড়ল। লাদাখে জওয়ানদের ঘাঁটির কাছে। তার দেখায় আর একটা হাস ও নিচে নেমে পড়ল। জখম হওয়ার হাঁসটির দূরবস্থা দেখে জওয়ানরা তাকে তুলে এনে তাদের মুরগি রাখার খালি জায়গাতে রেখেছিল। সারা শীতকাল হাস দুটি জওয়ানদের সাথে থাকতো আর মাছ জওয়ানদের ফেলে রাখা খাবার ইত্যাদি খেত । আর ধীরে ধীরে অসুস্থ হাঁসটি সুস্থ হয়ে উঠেছিল । এবং এভাবে শীত কেটে ধীরে ধীরে গরমকাল আসতে শুরু করেছিল । এইভাবে জওয়ানদের শীত কাল টি কেটে গিয়েছিল

১.৩. শুনেই হাবু বেজায় কাবু..- কোন কথা শুনে হাবু কেন কাবু হয়ে পড়ল ?

উত্তর :- দারোগাবাবু ও হাবু কে সব জানালা দরজা খুলে রাখার পরামর্শ দিয়েছিল । দারোগা বাবুর পরামর্শ অনুযায়ী জানালা দরজা খুলে রাখতে হাবুর দেড়শ পায়রা উড়ে যেত । তাই দারোগাবাবু কথা শুনে হাবু কাবু হয়ে পরলো ।

১.৪. ঝড় বাদলের রাতে সব শােনা যায়।- কী শােনা যায় বলে বক্তার বিশ্বাস ?

উত্তর :- ভজন ভক্ত বলতাে সুরবির নামে এক আদিবাসী রাজা ছিল। যার রাজ্যপাট চলে যাওয়ায় সে ঘন্টা তীর ধনুক নিয়ে ডুলং নদীতে ঝাঁপ দিয়েছিল। সে সেখানে অপেক্ষা করে আছে, আবার তার রাজত্ব উদ্ধারের আশায়। তার গর্জন আর ঘন্টার আওয়াজ এখনো ঝড় বাদলের দিনে শোনা যায় ।

১.৫. 'ছিটকিনিটা আস্তে খুলে পেরিয়ে গেলাম ঘর তার পরবর্তী পরিস্থিতির কথা পাখির কাছে ফুলের কাছে কবিতা অনুসরণে লেখাে।

উত্তর :- কবি প্রকৃতিপ্রেমিক মানুষ রাতের আকাশে ডাবের মত চাঁদ উঠতে দেখে কবি ছিটকিনিটা আস্তে করে খুলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। তার মনে হচ্ছিল ঝিম-ধরা শহরটা যেন থরথর করে কাঁপছে। মিনার কে দেখে মনে হয়েছে যে কেউ দাঁড়িয়ে আছে। দরগাতলা পেরোতে তিন্চিদখেনএকটা উটকো পাহাড় তাকে ডাকছে। লালদিঘির পাড়ে জোনাকিদের দরবার বসতে দেখেন। দীঘির কালো জল, ফুল, পাখিরা সবাই কবি কে বলেন কবিতা সোনাতে । কবি তার পকেট ছড়ার বই বের করে নিজের মনের কথা খুলে বলেন ফুল পাখিদের কাছে।

১.৬. খাব না তাে আমি’ – কথাটি 'বিমলার অভিমান কবিতায় কতবার ব্যবহৃত হয়েছে? কথক কেন বারবার কথাটি উচ্চারণ করেছে ?


উত্তর:- খাব না তাে আমি কথাটি কবিতাটিতে চারবার ব্যাবহৃত হয়েছে । বিমলা নামের একটি ছোট্ট মেয়ের রাগ বা অভিমান কে তুলে ধরা হয়েছে । বিমলার মাতার দাদা আর অবনিকে তার থেকে বেশি ক্ষির দেওয়াই তার অভিমান । কিন্তু কাজের বেলাই শুধু বিমলাকে বলা হয় তাই খাবো না তো আমি কথাটি বারবার ব্যাবহৃত হয়েছে ।

নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

২.১. ঠিক উত্তরটি হল উৎ + মেষ = উন্মেষ / পদ+ ধতি = পদ্ধতি / রাজ + নী = রাঙগি / ষষ + ঠ = ষষ্ঠ।


উত্তর :- উৎ + মেষ = উন্মেষ এবং রাজ + নী = রাঙগি ।

২.২. গাঢ় নীল আকাশ মাথার উপর। নিম্নরেখাঙ্কিত পদটি হল সকর্মক ক্রিয়া | নাম বিশেষণ / বিশেষণের বিশেষণ / ক্রিয়া বিশেষণ।


উত্তর :- বিশেষণের বিশেষণ ।

২.৩. সন্ধি বিচ্ছেদ করাে - পরিষ্কার।

উত্তর :- পরি:+কার ।